ফেয়ারলিপ্লেস। কম খরচে ভারতের ট্রেনের টিকেট

ফেয়ারলিপ্লেস
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ফেয়ারলিপ্লেস এ ট্রাভেল কোটায় যে কোন সময়ে ভারতের ট্রেনের টিকেট কাটা যায়।

কম খরচে ভারত ভ্রমণ করতে চাইলে ভারতের ট্রেনে ভ্রমণ এর বিকল্প নেই। ভারতের এক রাজ্য থেকে আরেক রাজ্যে কম খরছে ট্রেনে যাতায়াত করা যায়।

ভারতের নাগরিকরা খুব বেশি পরিমাণে ট্রেনের সেবা গ্রহণ করে। এমনকি অনেক সময় এক মাস আগে ট্রেনের সকল সিট বিক্রি হয়ে যায়।

তবে ট্যুরিস্টদের জন্য ভারতের রেল সংস্থা একটি বিশেষ সুবিধা রেখেছে। ট্রেনের যাত্রার আগের দিনও কিছু পরিমাণ সেট তারা রেখে দেয় টুরিস্ট দের জন্য। ভারতের যারা টুরিস্ট ভিসায় অন্য দেশ থেকে আসে তারা কম খরচে যাত্রার আগের দিনও রেলের এই সেবা গ্রহণ করতে পারে। ইভেন আমি যেদিন রাতে কলকাতা থেকে দার্জিলিং গিয়েছিলাম সে টিকিট সকালে কেটেছি।

 

কলকাতায় ভারতের রেল ভবন ফেয়ারলি প্লেস এই ট্রাভেল টিকেট কাটা যায়। ভারত থেকে বাংলাদেশের একটি ট্রেন যাতায়াত করে তার নাম মৈত্রী এক্সপ্রেস। মৈত্রী এক্সপ্রেসের টিকেট এই ফেয়ারলি প্লেস থেকে কাটা যায়। ফেয়ারলি প্লেস অন গুগোল মাপস এর লিংক এখানে দিয়ে দিলাম

ফেয়ারলি প্লেস এ টিকিট ইস্যু করা হয় সকাল 9:30 থেকে বিকাল 4 টা পর্যন্ত। কিন্তু আপনি যদি টিকেট পেতে চান আপনাকে সকাল ছটার মধ্যে গিয়ে লাইন ধরতে হবে। তাহলে কি ভাবছেন চার ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হবে? এখানে ওরা একটি সুন্দর সমাধান রেখেছেন। ভোর ছয়টায় একজন পাহারাদার একটি কাগজ আর একটি কলম দিয়ে দেয়। যারা সকালে আগে পৌঁছাবেন তারা সেই কাগজে নাম মোবাইল নাম্বার পাসপোর্ট নাম্বার লিখে দেয়। তাহলে একটি সিরিয়াল হয়ে গেল। এরপর আপনি নিজের মত করে ফেয়ারলি প্লেস এর আশেপাশে ঘুরে বেড়াতে পারেন। সাড়ে নয়টার কিছুটা আগে এসে কাগজে লিখিত নাম অনুযায়ী সিরিয়ালে দাঁড়িয়ে গেলে হলো।

সকালে লিস্টে নিজের নাম লিপিবদ্ধ করার সময় একটি বিষয় খেয়াল রাখবেন। এখানে দুইটি সিরিয়াল হয়। একটি সিরিয়াল হচ্ছে বাংলাদেশ মৈত্রী ট্রেনের টিকেট কাটতে চায় তাদের জন্য। আপনার যারা ভারত থেকে বাংলাদেশে ট্রেনে আসতে চায় তার সিরিয়াল আলাদা। আর যারা ভারতের একই স্থান থেকে আরেক স্থানে ট্রেনে যাতায়াত করতে চায় তাদের লিস্টের নাম আলাদা থাকে।

 

ফেয়ারলি প্লেস এ যদি টিকেট কাটবেন সেদিন হাওড়া ব্রিজ ঘুরে আসতে পারেন। এর পাশেই মিলিনিয়াম পার্ক আছে সেখানেও rs.10 দিয়ে টিকেট কেটে পার্কে ঘুরে বেড়াতে পারেন। সকালের হাঁটাহাঁটি করতে খারাপ লাগবে না। আমার ভালই লেগেছিল।

আরও পড়ুন  ভারত ভ্রমনের প্রথম দিন।


Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *