কাট্টলী ম্যানগ্রোভ বনে ক্যাম্পিং. বাড়ির দরজায় ভ্রমণকথন

কাট্টলী ম্যানগ্রোভ বনে ক্যাম্পিং
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাড়ির দরজায় ভ্রমণকথন :

কাট্টলী ম্যানগ্রোভ বনে ক্যাম্পিং :
ছবির মত সুন্দর একটা গ্রাম আমাদের কাট্টলী (উত্তর+দক্ষিণ) কেউই কারো থেকে কম নয়।

প্রায়ই অনেক ইউটিউব/ট্রাভেল ব্লগ এগুলাতে গুলিয়াখালী সমুদ্রের পাড়,সীতাকুন্ডের ঝর্ণা,পাহাড় বা সীতাকুন্ডাংশে যতটুকু সমুদ্রের পাড় রয়েছে তার কথাগুলাই ঘুরে ফিরে আসে।

তার একটা মূল কারণ হল #চন্দ্রনাথ ধাম এর খুব সন্নিকটে উক্ত পর্যটন স্পট গুলা।
আর বিশেষত ঢাকা বা দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মানুষ ঘুরতে আসার সময় উক্ত স্পটগুলাতেই বেশি ঘুরে থাকেন।

যাহোক ফিরে আসি মূল কথায়,
অনেকেরই কিন্তুু অজানা এদের থেকেও কোন অংশে কম না বরং বেশি বৈকি তা হল কাট্টলীর মত একটা অনিন্দ্য সুন্দর গ্রামের অবতারণা রয়েছে মূল চট্টগ্রামের প্রবেশপথ সিটি গেইট সংলগ্ন প্রায় সম্পূর্ণ এলাকা।
এখানেই রয়েছে জহুর আহমদ চৌধুরী আন্তর্জাতিক স্টেডিয়াম,রয়েছে দত্ত বাড়ি,পাঁচ টাকা দূরত্বে ফয়েজ লেক,সনাতনী তীর্থস্থান কৈবল্যধাম,বেশ কয়েকজন আল্লাহর অলির মাজার,চট্টগ্রাম ইপিজেডের পরেই বড় পোশাক শিল্পান্ঞল,রয়েছে সমুদ্র পাড়ের সারি সারি কেওড়া ও ম্যানগ্রোভ বনান্ঞল,দেশের অন্যতম ইলিশ আহরণের স্থান,কাস্টম একাডেমী ইত্যাদি ইত্যাদি…….

আবার মজার ব্যাপার হল ঢাকা-চট্টগ্রাম মূল সড়ক এর এই দুই পাশে এক পাশে সাগর অন্যপাশে পাহাড়-পর্বত টিলা বেষ্টিত ফিরোজশাহ কলোনী।

আমরা প্রায় প্রতিবছরই এই দইজ্জার কূল [ সমুদ্র পাড় ] এ ক্যাম্পিং করে থাকি।

এবারও তার ব্যতিক্রম হয় নাই যার মূলশুরুটা
ও হয়েছিল দুই প্রিয় বন্ধু Apu Nazrul ও
Iqbal Jabed দের হাত ধরেই।

তো ঠিক আমাদের ইভেন্টটা ছিল অনেকটা ধর তক্তা মার পেরেকের মত আগের দিন রাতে জাবেদ বলল কামরুল কাল রাতে ক্যাম্পিং করবো,Mahmudul Hoque Riad রে বললাম ও বলল চল। আমি বললাম ভাই তাবু নাই।

কয়দিন আগেই Md Imrul Hasan Warsi ভাইয়ের সাহায্যে Fazlay Rabby ভাই ও Hanium Maria Raka আপু ওনাদের সাথে যোগাযোগ করছিলাম,ওনারা বলছেন বর্তমানে তাঁবুর সংকট যা আছে তা বেশ চড়া দাম কি আর করা ?

বুঝলাম ট্রাভেলিং এহন মেনশন মেনশন এর গন্ডি পার হইছে যাক এইডা ভালো দিক। এহন পরিবেশটা ভাল রাখলেই হয়।বাঙ্গালীর জাতীয় খাবার তো আবার বিরিয়ানী।
আবার অপুরে নক দিলাম ভাগ্যিস ওর কাছে একটা ইনটেক ছিল কইল,”ধর লাগলে নে”।

কিন্তুু সে বন্ধু এখন অনেক বড় মাপের মানুষ
বুঝেনই তো #BBC_WORLD এর মত চ্যানেলে ইন্টারভিউ দেয়।
ভাগ্যিস ও চট্টগ্রাম আসতেছিল

Bangladesh University of Professional’s এর বিশাল লাট বহর নিয়া ১ সপ্তাহর ট্যুর।
ওর থেকে একপিস।আরেকপিস নিলাম সদ্য কোরবানী হওয়া Md. Ullah Kamal ওরফে প্রিয় রতন ভাইয়েরটাও।
এডিটিং এর যুগ জোড়াতালীর সংসার
বেশ কয়েকজনের নিজের তাবু ছিল।
সবমিলিয়ে তাবু ৮ টা,মানুষ ছিলাম ২৮ জন।

মজার ব্যাপার হলো আমার অবস্থা হয়েছিল
সোনার তরীর মত “ঠাঁই ঠাঁই নাই ছোট সে তরী”..
অগত্যা ইভেন্টানন্দে আমি আর Rahul Olo
চুলার পাশেই নিচে কাগজের কার্টুনের উপর কম্বল মুড়ি দিয়ে ঘুম।

এই চরম মুহুর্তেও একটা কাজ করতে ভুলে নাই আমাদের প্রিয় বন্ধু Mahmudul Hoque Riad ওরফে #ভিডিও রিয়াদ যে খালি ভিডিও করে ….

যথারীতি বাজার করার পর যেহেতুু সবকিছু প্রিকুকড করতে করতে লেগে গিয়েছিল দুপুর ২:৩০ থেকে বিকাল ৫:৩০. তিনঘন্টায় আলহামদুলিল্লাহ প্রস্তুুতিপর্ব করেছিলাম।

অত:পর সাঙ্গপাঙ্গ সব নিয়ে অন দি স্পট। যেহেতু আমরা প্রায় সবাই এলাকার ছেলে ছিলাম সেহেতুু নিরাপত্তার কোন কিছু মাথায়ই আসে নাই।এটা আমাদের কাছে বাড়ির উঠানের মতই ছিল।

সারারাত ধরে আড্ডা দিলাম কি না ছিল গান,গল্প,রাতের নিকশ কালো আঁধারে পোকামাকড়ের ঘুঘঘুঘা ডাক। Mohammed Atik Islam Ijaj Mahmud Shariar Hossain Kias ÅfrîDë এদের গিটারটা আড্ডাকে করে তুলেছিল আরো প্রাণবন্ত।

ধন্যবাদ ছোট ভাই
ফয়সাল ইমাম তোমার থেকে
উজ্জীবিত হইছি না হলে হয়ত লিখতাম না।
ইভেন্টটির সার্বিক পরিচালনায় ছিল দ্যা টিম

ইভেন্টে অংশগ্রহণকারীদের অভিভাবকের মত আগলে রেখেছেন আমাদের অনেকেরই প্রিয়
#Sohail_Rashid ভাইয়া।
উদপূর্তির বাবদ খরছ ছিল খুবই সামান্য মুড়ি/চানাচুর+বারবিকিউ/রুটি+হাড্ডি যোগে খিচুড়ি
সর্বসাকুল্যে ৩০০/- খরচ হয়েছিল।তবে এটা শুধু আমাদের নিজ এলাকা শুধু সেই জন্য।
হ্যাপী ক্যম্পিং এন্ড ট্রাভেলিং।

বি:দ্র: খাওয়ার অবশিষ্টাংশ এদিক ওদিক ফেলবেন না,জঙ্গলের ২/৪ টা কুকুর পাবেন ই,
হাড্ডিগুলা ওদের দিলে পরম তৃপ্তি সহকারেই খাবে।আর ময়লাগুলা বস্তা ভরে সার সময় রাস্তার ধারে ডাস্টবিনে ফেলবেন।

আমাদের ইভেন্টে যোগ দিতে চাইলে এখানে চোখ রাখুন

লিখেছেনঃ  Kamrul Islam Saddam


Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *